সৈয়দপুর পৌরসভার ১৩১ কোটি ১৯ লাখ টাকার বাজেট ঘোষণা

শাহজাহান আলী মনন:নীলফামারীর সৈয়দপুর পৌরসভার ২০২১-২২ অর্থবছরের বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। ২৮ জুন সোমবার বিকাল ৪ টায় পৌর মেয়র রাফিকা আকতার জাহান বাজেট উপস্থাপন করেন। বাজেটে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১৩১ কোটি ১৯ লাখ ৬৩ হাজার ৪৫৬ টাকা। এর মধ্যে উন্নয়ন খাতে বরাদ্দ রাখা হয়েছে ১২৭ কোটি ৪৩ লাখ ৮হাজার ৮৭৮ টাকা এবং রাজস্ব খাতে ২৬ কোটি ৪৯ লাখ ২২ হাজার ৯৭৯ টাকা। উন্নয়নে ব্যায়ের উল্লেখযোগ্য খাতগুলো হলো আধুনিক পৌর সুপার মার্কেট নির্মাণে ২৪ কোটি ৪৯ লাখ ২৩ হাজার ৬৬২ টাকা, পৌর ১৫ টি ওয়ার্ডের রাস্তা ও ড্রেন নির্মানে ১০ কোটি ৬৪ লাখ টাকা,, জলবায়ু পরিবর্ত জনিত কারনে সোলার লাইট ও ডাস্টবিন স্থাপন বাবদ ১০ কোটি টাকা।

পৌর কমিউনিটি সেন্টারের অধিবেশন কক্ষে আয়োজিত অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন ১৪ নং ওয়ার্ড কাউন্সিলর ও পৌর আওয়ামীলীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক জোবায়দুর রহমান শাহীন। এতে স্বাগত বক্তব্য রাখেন পৌর সচিব মোঃ সিদ্দিকুর রহমান, নির্বাহী প্রকৌশলী আইয়ুব আলী, প্যানেল মেয়র-১ শাহিন হোসেন, প্যানেল মেয়র-২ আাবুল কাশেম দুলু ও প্যানেল মেয়র-৩ সাবিয়া সুলতানা সহ ২০ জন ওয়ার্ড কাউন্সিলর।

শুভেচ্ছা বক্তব্য রাখেন, সংরক্ষিত মহিলা এমপি-২৩ রাবেয়া আলিম, নীলফামারী জেলা পরিষদ সদস্য ও সৈয়দপুর রাজনৈতিক জেলা বিএনপি’র আহ্ববায়ক অধ্যক্ষ আব্দুল গফুর সরকার, সৈয়দপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি মোখছেদুল মোমিন, সাধারণ সম্পাদক মহসিনুল হক মহসিন, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও বিএনপি নেতা এ্যাড. এস এম ওবায়দুর রহমান, উপজেলা মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান সানজিদা বেগম লাকী, পৌর আওয়ামীলীগের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি রফিকুল ইসলাম বাবু, সাধারণ সম্পাদক মোজাম্মেল হক, আঅন্তর্জাতিক উন্নয়ন সংস্থা ইউএনডিপি’র সৈয়দপুর টাউন ম্যানেজার রফিকুল ইসলাম, প্রকল্প এক্সপার্ট মোতাওয়াক্কে বিল্লাহ, এসকেএস ফাউন্ডেশনের শাখা সমন্বয়ক নজরুল ইসলাম তফাদার, ব্র্যাক আরবান ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্টের আঞ্চলিক সমন্বয়কারী প্রমুখ।

পৌর মেয়ের রাফিকা আকতার জাহান বলেন, আমি একজন অরাজনৈতিক ব্যক্তি। কিন্তু ভাগ্যক্রমে ও মানবতার মা জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বদান্যতায় আজ আমি মেয়র। আমি পৌর পরিষদের সকল সদস্য ও নাগরিক সমাজের নেতৃস্থানীয় ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের নিয়ে পরামর্শক্রমে উন্নয়ন করতে চাই। ইতোমধ্যে বিভিন্ন উন্নয়ন কাজ হাতে নেয়া হয়েছে। এরই আলোকে রাস্তা সংস্কার ও আধুনিক টয়লেট ব্লক নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছ।

একইভাবে শহরের সবগুলো রাস্তা মুক্তিযুদ্ধে সৈয়দপুরের শহীদদের নামে নামাঙ্কিত করার কার্যক্রম শুরু করেছি। আমার স্বামী সাবেক মেয়র মরহুম আখতার হোসেন বাদল কর্তৃক নির্মিত পৌর সবজি মার্কেট এর নাম তাঁর নামে এবং সদ্য নির্মিত পৌর কমিউনিটি সেন্টারটিও হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙ্গালী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমানের নামে নামকরণ করার উদ্যোগ নেয়া হয়েছে।

আজকের এই বাজেটের আলোকে সার্বিক উন্নয়ন কাজ সম্পন্ন করার মাধ্যমে সৈয়দপুরকে একটি আধুনিক নগরী হিসেবে গড়ে তোলার ক্ষেত্রে সৈয়দপুরের সর্বস্তরের জনগণের সহযোগীতা প্রত্যাশা করছি। বিশেষ করে রাজনৈতিক নেতৃবৃন্দ, ব্যবসায়ী, জনপ্রতিনিধি ও সাংবাদিকদের সর্বাত্মক সহায়তা কামনা করি। আমি নতুন আমাকে সঠিক দিক নির্দেশনা দিয়ে সৈয়দপুরবাসীর আকাঙ্ক্ষার প্রতিফলন ঘটাতে আপনাদের সকলের সহযোগীতায় এগিয়ে যেতে চাই।

উল্লেখ্য, ১৯৫৮ সালে প্রতিষ্ঠিত সৈয়দপুর পৌরসভা একটি প্রথম শ্রেনীর পৌরসভা। গত ১৪ ফেব্রুয়ারী অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে এবারই প্রথম একজন নারী মেয়র নির্বাচিত হয়েছেন। তাছাড়া নবীন প্রবীন সদস্যদের সমন্বয়ে গঠিত দশম পরিষদের এটাই প্রথম বাজেট। এতে সংবাদকর্মী, ব্যবসায়ী ও সুধীজনসহ বিভিন্ন পেশাজীবী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং পৌর কর্মকর্তা কর্মচারীগণ উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *