মাদারীপুরের কালকিনিতে মামলা তুলে নিতে বাদির পরিবারের উপর হামলা,আহত ৭

মোঃ আতিকুর রহমান আজাদ : মামলা তুলে না নেয়ায় মাদারীপুরের কালকিনিতে মোঃ আসলাম খাঁন-(৩০) নামের এক অসহায় কৃষক পরিবারের উপর ফের হামলা চালিয়ে বসতবাড়ি ভাংচুর ও লুটপাট করেছে আসামী পক্ষ।এসময় তাদের বাঁধা দিলে ওই কৃষক পরিবারের নারীসহ প্রায় ৭জন সদস্য আহত হয়। খবর পেয়ে থানা পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে।পরে আহতদেরকে পুলিশের সহযোগীতায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।মঙ্গলবার দিবাগত রাত ৮ টার দিকে এ হামলার ঘটনা ঘটে।

এদিকে এ হামলার ঘটনায় আজ বুধবার সকালে ৬ জনকে আসামী করে থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে ভূক্তভোগী পরিবার।ভুক্তভোগী,সরেজমিন ও পুলিশ সুত্রে জানাগেছে,উপজেলার বালিগ্রাম এলাকার পশ্চিম বালিগ্রাম গ্রামের মোঃ সালাম খাঁনের ছেলে অসহায় কৃষক আসলাম খানের পরিবারের সঙ্গে একই এলাকার আঃ রব চৌকিদারের ছেলে জাকির চৌকিদারের দীর্ঘদিন ধরে জমি সংক্রান্ত বিরোধ চলে আসছে।এর জের ধরে গত জানুয়ারিতে অসহায় কৃষক সালাম খানের পরিবারের উপর হামলা চালায় জাকির ও তার লোকজন।

পরে জাকিরের পরিবারের বেশ কয়েকজনকে আসামী করে আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন কৃষক আসলামের পিতা আঃ সালাম খান।এ মামলা তুলে নেয়ার জন্য বিভিন্ন সময় হুমকী দিয়ে আসছে আসামী পক্ষ।বারবার বলার পরে এ মামলা তুলে না নেয়ায় জাকির চৌকিদার,সজিব চৌকিদার, রাসেল চৌকিদার,ওয়াসিম চাপরাসি,বায়েজিদ ও জাহিদ মাতুব্বরসহ ১০/১৫জন মিলে দেশী অস্ত্রে সজ্জিত হয়ে অসহায় কৃষক আসলাম খানের বসতবাড়িতে ফের হামলা চালিয়ে কুপিয়ে ভাংচুর ও লুটপাটের ঘটনা ঘটনায়।

এসময় তাদের বাঁধা দিলে আসলাম খান-(৩০),তার মা রানু বেগম-(৫০),স্ত্রী পলি বেগম-(২২),বোন সাদিয়া-(১৮) ও তার মেয়ে মারজিয়াসহ কমপক্ষে ৭ জন আহত হন।খবর পেয়ে উপজেলার ডাসার থানার এস.আই অখিল রায় সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।পরে আহতদেরকে পুলিশের সহযোগীতায় উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়।

তবে আহত রানু বেগমের অবস্থার অবনতী হলে তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল সেবাচিম হাসপাতে রেফার্ট করেন।এদিকে ৬জনকে আসামী করে ভূক্তভোগী আসলাম খান থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।অভিযুক্ত জাকির চৌকিদার বলেন,হামলা আমি চালাইনি।তবে এলাকার কিছু লোকজনে এ কাজ করছে।

ভূক্তভোগী আসলাম খান বলেন,আমাদের উপরে গত জানুয়ারিতে হামলা চালিয়েছে জাকির চৌকিদার ও তার লোকজন।পরে আমার বাবা আদালতে মামলা করলে তা তুলে নিতে বাববার হুমকী দিয়ে আসছে আসামী পক্ষের লোকজন।আমরা এ মামলা তুলে না নেয়ায় ফের হামলা চালিয়েছে জাকির ও তার লোকজন।তাই আমি তাদের নামে থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছি।

এ ব্যাপারে উপজেলার ডাসার থানার ওসি মোঃ হাসানুজ্জামান বলেন,খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে।এবং এ হামলার ঘটনায় লিখিত অভিযোগ পেয়েছি।তদন্ত সাপেক্ষে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *