সাম্প্রদায়িক নয়, বাঙালি পরিচয়ে দেশ স্বাধীন হয়েছিল- শিল্পমন্ত্রী

প্রদীপ কুমার দেবনাথ : নরসিংদী জেলার মনোহরদী পৌরসভায় অন্তর্গত হিন্দুপাড়ায় প্রস্তাবিত মন্দির স্থাপনের স্থান মাননীয় শিল্পমন্ত্রী এডভোকেট নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন এম.পির নেতৃত্বে পরিদর্শন কালে এক সংক্ষিপ্ত সভায় বক্তৃতায় বলেন ‘দেশ স্বাধীন হয়েছিল বাঙালি পরিচয়ে। তখন জয়বাংলা ছিল একমাত্র শ্লোগান এবং আদর্শ ছিল বঙ্গবন্ধু। কোন সাম্প্রদায়িক ভিত্তির উপর এ দেশ স্বাধীন হয়নি। তখন হিন্দু – মুসলিম হাতে হাত রেখে প্রাণপণে যুদ্ধ করে নিজের জীবনের বিনিময়ে এদেশ স্বাধীন করেছিল। কে হিন্দু, কে মুসলমান সে পরিচয় ছিলনা। আজ কেন বিভাজন হবে?’ তিনি বলেন, মাননীয় প্রধানমন্ত্রী বঙ্গবন্ধুর মতোই অসাম্প্রদায়িক ও মুক্তচিন্তার মানুষ।

সকল ধর্ম, বর্ণের মানুষ সমান সুযোগ পাচ্ছে। হিন্দু ধর্মাবলম্বীরা যাতে সঠিকভাবে ধর্মকর্ম পালন করতে পারে, নিয়মিত পূজার্চনা ও অন্যান্য ধর্মীয় অনুষ্ঠান যথাযথ পালন করতে পারে সেই উদ্দেশ্যে এ মন্দির নির্মাণ করা হচ্ছে।তিনি আরও বলেন, প্রস্তাবিত এই মন্দিরটি সকলের প্রচেষ্টায়, সকলের অংশগ্রহণের ভিত্তিতে তৈরি করা হবে। পরে মাননীয় শিল্পমন্ত্রী দ্রুততম সময়ের মধ্যে মন্দিরটি নির্মাণের তাগিদ দেন। এ সময় তিনি মনোহরদী পৌর মেয়র আমিনুর রশিদ সুজনকে আহবায়ক করে বিশিষ্ট একটি কমিটি গঠন করে দেন। আগামী ৭ দিনের মধ্যে মন্দিরটি নির্মাণের সকল ব্যবস্থা সংক্রান্ত প্রতিবেদন মন্ত্রী মহোদয়ের নিকট জমাদানের নির্দেশ দেন। পরে তিনি মন্দির নির্মাণের ক্ষেত্রে সব ধরনের সহযোগিতার আশ্বাস দেন।

মনোহরদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সহ প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক সুমন বর্মণের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, নরসিংদী জেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও জেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক আবদুল মতিন ভূইয়া,নরসিংদী শহর আওয়ামীলীগ সভাপতি ও পৌরসভার মেয়র কামরুজ্জামান কামরুল, সাধারন সম্পাদক মো.আমজাদ হোসেন বাচ্ছু, মনোহরদী উপজেলা আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক প্রিয়াশীষ রায়, যুগ্ন সম্পাদক মঞ্জুরুল মজিদ মাহমুদ সাদী, মনোহরদী পৌরসভার মেয়র আমিনুর রশিদ সুজন, মনোহরদী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো. মনিরুজ্জামান, নরসিংদী জেলা পরিষদের সদস্য ইসরাত জাহান তামান্না, মনোহরদী উপজেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি সনজয় কুমার রায় ও সাধারণ সম্পাদক বিষ্ণুপদ সাহা সহ প্রমুখ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *