নীলফামারীর সৈয়দপুরে নকল অলংকার দেয়ায় বরপক্ষকে আটকে বিয়ে ভঙ্গ

শাহজাহান আলী মনন : নীলফামারীর সৈয়দপুরে বিয়ে বাড়িতে সোনার বদলে নকল অলংকার আনায় দুই পক্ষের মধ্যে মারামারি এবং বরপক্ষ কে একদিন আটকে রেখে বিয়ে ভাঙ্গার ঘটনা ঘটেছে।উপজেলার বোতলাগাড়ী ইউনিয়নের দক্ষিণ সোনাখুলী সরকার পাড়ার এ ঘটনায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়েছে।

জানা গেছে,ওই এলাকার এক মেয়ের সাথে আড়াই মাস আগে বিয়ে রেজিষ্ট্রি হয় দিনাজপুরের খানাসামা উপজেলার তেবাড়িয়া চৌপথি এলাকার হোটেল ব্যবসায়ী হবিবর রহমানের ছেলে মফিজুল ইসলামের।শুক্রবার (১১ জুলাই) ছিল কনে বিদায়ের দিন।ওইদিন সন্ধ্যায় ৫০-৬০ জন বরযাত্রী নিয়ে কনেকে নিজবাড়িতে নিয়ে যাওয়ার জন্য আসেন বর মফিজুল।

একদিকে বরপক্ষের খাওয়া-দাওয়া চলছিল আর অন্যদিকে কনে সাজানো হচ্ছিল।কনের ভাবি টের পান যে বরপক্ষের দেওয়া হাতের বালা দুইটি স্বর্ণের নয় সিটিগোল্ডের।এনিয়ে বরপক্ষের সাথে শুরু হয় কথা কাটাকাটি।এক পর্যায়ে তা হাতাহাতিতে রূপ নেয়।সারারাত ও পরেরদিন বরপক্ষকে আটকে রাখে কনেপক্ষ।

শনিবার (১২ জুলাই) রাতে দুই পক্ষের জনপ্রতিনিধির উপস্থিতিতে কনে তালাক করে নেয়া হয়।প্রতারণার এমন ঘটনায় হতবাক হয়ে পড়েছে এলাকাবাসী।আর একারনে নববধূর বিয়ে ভেঙে যাওয়ায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হয়।

বোতলাগাড়ি ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোহাম্মদ আলী সরকার জানান,দুই মাস আগে বিয়ে রেজিস্ট্রি হয়েছিলো তাদের।শুক্রবার কনে নিয়ে যাওয়ার অনুষ্ঠান ছিলো।এদিন রাতে মতবিরোধ তৈরি হওয়ায় বিয়ে ভেঙ্গে যায় তাদের।পরে তালাক করে নেয়া হয় মেয়েকে।বরপক্ষকে এক লাখ টাকা দিয়েছিলো মেয়ে পক্ষ।এরমধ্যে ৭০ হাজার টাকা নগদ ফেরত দিয়েছে বরপক্ষ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *