পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালীতে বয়স্ক,বিধবা ও প্রতিবন্ধী কার্ডধারীদের থেকে অর্থ আদায়

মোঃ রিফাত হোসেন : কোনো নিয়মনীতির তোয়াক্কা না করে পটুয়াখালীর রাঙ্গাবালী উপজেলায় বয়স্ক,বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতার কার্ডধারীদের কাছ থেকে নগদ একাউন্ট খুলতে টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।উপজেলার মৌডুবী ইউনিয়নে এ ঘটনা ঘটে।উপজেলার মৌডুবী ইউনিয়নের চদ্রিমাঝি গ্রামের শফিকুল ইসলামের ছেলে শাওন (২০) কার্ডধারীদের কাছ থেকে টাকা আদায় করেছেন বলে কার্ডধারী ভুক্তভোগীরা জানান।

উপজেলার মৌডুবী ইউনিয়নের একাধিক কার্ডধারীরা নাম প্রকাশ না করার শর্তে জানান,তাদের বয়স্ক,বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতার নগদ একাউন্ট খুলতে তাদের কাছ থেকে ১০০-৫০০ পর্যন্ত টাকা নিয়েছেন শাওন।মৌডুবী ইউনিয়নের বাইলাবুনিয়া গ্রামের জহিরুল ইসলাম জানান,তার মায়ের বয়স্ক ভাতার নগদ একাউন্ট খুলতে শাওন তার কাছ থেকে খরচ লাগবে বলে ১০০ টাকা নিয়েছেন।

তিনি আরও জানান,তার চোখের সামনে থেকে আরো ১০ জনেরও বেশি লোকের কাছ থেকে এভাবে টাকা নিয়েছেন।মৌডুবী ইউনিয়নের মনিপাড়া গ্রামের দেলোয়ার জানান, তার শাশুড়ীর বয়স্ক ভাতার কার্ডে সমস্যা আছে এমনটা বলে তার কাছ থেকে ২০০ টাকা দাবি করেন শাওন।মৌডুবী ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোক্তা আজিজুর রহমান সুজন জানান,শাওন বয়স্ক,বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতার নগদ একাউন্ট খুলতে টাকা আদায় করেছে।

এমনকি আমার নাম ভাঙিয়েও অনেকের কাছ থেকে ৪০০-৫০০ টাকা আদায় করেছে।এতে লক্ষাধিক টাকা হাতিয়ে নিয়েছেন বলে জানান ভুক্তভোগীরা।মৌডুবী ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য আবুল কালাম আজাদ বলেন,আমার কাছে কয়েকজন মৌখিক জানিয়েছেন শাওনের টাকা আদায়ের বিষয়ে।আসলে কেন টাকা নেয় আমার জানা নেই।

মৌডুবী ইউনিয়নের প্রশাসক মোঃ মনিরুল ইসলাম বলেন,বিষয়টি আমি শুনেছি।এ বিষয়ে যাতে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহন করা হয় সেজন্য উপজেলা সমাজসেবা অফিসে যোগাযোগ করবো।এ বিষয়ে উপজেলা সমাজসেবা কর্মকর্তা মুঃ অলিউল ইসলাম বলেন,বয়স্ক, বিধবা ও প্রতিবন্ধী ভাতার একাউন্ট খুলতে বা এ সংশ্লিষ্ট কোনো কাজে টাকা নেয়ার বিধান নেই।এ বিষয়ে খোঁজ নিয়ে প্রয়োজনীয় পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *