হেফাজত নেতা মামুনুল অন্যের স্ত্রীসহ রিসোর্টে আটক,ছাড়িয়ে নিলো কর্মীরা

কালজয়ী রিপোর্ট : হেফাজত ইসলামের কেন্দ্রীয় যুগ্ম মহাসচিব ও বাংলাদেশ খেলাফত মজলিশের মামুনুল হককে এক নারীসহ আটক করে পুলিশে খবর দিয়েছে স্থানীয়রা।তবে ওই নারীকে নিজের স্ত্রী বলে দাবি করেছেন মামুনুল হক।শনিবার (০৩ এপ্রিল) নারায়ণগঞ্জের সোনারগাঁও উপজেলার রয়েল রিসোর্টে মামুনুল হককে নারীসহ অবরুদ্ধ করেন স্থানীয়রা।তারপর তিনি পুলিশের হেফাজতে ছিলেন ।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন সোনারগাঁও থানার পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) তবিদুর রহমান।তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন তিনি।স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,সোনারগাঁওয়ের রয়েল রিসোর্টের ৫০১ নম্বর কক্ষে এক নারীসহ মামুনুল হককে আটক করে স্থানীয় জনগণ।পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।মামুনুল হকের দাবি,সঙ্গে থাকা নারী নাম আমিনা তৈয়বা।ওই নারীকে নিজের দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করেন তিনি।

তবে বিয়ের কাবিননামা বা প্রমানাদি দেখাতে পারেননি।আমিনাকে সঙ্গে নিয়ে রিসোর্টে ঘুরতে গিয়েছিলেন তিনি।তবে ওই নারী নিজের নাম জান্নাত আরা বলে জানিয়েছেন।বিষয়টি নিশ্চত করেছেন সোনারগাও থানার পরিদর্শক (ওসি-তদন্ত) তবিদুর রহমান। তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে বলে জনিয়েছেন তিনি।

স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে,সোনারগাওয়ের রয়েল রিসোর্টের ৫০১ নম্বর কক্ষে এক নারীসহ মামুনুল হককে আটক করে স্থানীয় জনগন।পরে পুলিশ গিয়ে তাকে উদ্ধার করে।মামুনুল হকের দাবি,সঙ্গে থাকা নারী নাম আমিনা তৈয়বা।ওই নারীকে নিজের দ্বিতীয় স্ত্রী দাবি করেন তিনি।তবে পুলিশি জিজ্ঞাসাবাদে তিনি বলেন ওই নারীর সাথে মৌখিক বিয়ে হয়েছে।

আমিনাকে সঙ্গে নিয়ে রিসোর্টে ঘুরতে গিয়েছিলেন তিনি।শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত তাকে পুলিশি নিরাপত্তা থেকে দলীয় কর্মীরা ছাড়িয়ে নিয়ে যায় ও সোনারগাঁও উপজেলার রয়েল রিসোর্ট হোটেলে হেফাজত কর্মীরা ভাংচুর,লুটপাট চালায়।মামুনুল হককে কর্মীরা ছাড়িয়ে নেয়ার পর কর্মীদের উদ্দেশ্যে বক্তব্যও রাখেন তিনি।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *