কুমিল্লার চৌদ্দগ্রামে নিয়মিত রমরমা জুয়ার আসর,দেখার কেউ নেই

নুরুল আলম : কুমিল্লার চৌদ্দগ্রাম উপজেলার শুভপুর ইউনিয়নের আঠার বাঁক গ্রামে নিয়মিত জুয়ার আসর বসে।শনিবার (৬ মার্চ) বিকেলে সরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জুয়া খেলার বিষয়ে সত্যতা পাওয়া গেছে।আঠার বাঁক গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে হাসানের নেতৃত্বে গ্রামের পাশ দিয়ে বয়ে চলা নদীর তীরের নির্জন স্থানে প্রতিদিন সকাল থেকে গভীর রাত পর্যন্ত জুয়াখেলা চলে।গ্রামের সকল শ্রেণীপেশার মানুষ এবিষয়ে প্রতিবাদ করলেও জুয়াড়ীরা কোনো প্রকার কর্ণপাত না করে নিয়মিত জুয়া খেলে আসছে।

জুয়াখেলায় নিষেধ করায় তাদের কাছে অনেকেই হেনস্তা হয়েছেন।গ্রামের তরুণ ছেলেদের সাথে করে তাদেরকে জুয়া খেলায় বসিয়ে তাদের জীবন ধ্বংস করছে সে গ্রামের রফিকুল ইসলামের ছেলে হাসান মিয়া।নিজ গ্রাম ছাড়াও অন্য গ্রামের ছেলেদের সাথে নিয়ে সে জুয়ার আসর চালায়।সংঘবদ্ধ জুয়াড়ীরা খুবই বেপরোয়া ও শক্তিশালী।তাই অনেকেই এখন আর তাদের কিছু বলার সাহস পায় না।

স্কুল পড়ুয়া অল্প বয়সী ছেলেদের ডেকে এনে জুয়া খেলায় বসিয়ে টাকা হাতিয়ে নেয়া হয়।জুয়াড়ীদের কাছে প্রায় সময়ই গ্রামের গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ লাঞ্চিত হওয়ার ঘটনা ঘটেছে।হাসানের সাথে জুয়া খেলে তার সহদর দুই ভাই রিয়াজ,রবিন,সেলিম মিয়ার ছেলে রনি,হানিফ মিয়ার ছেলে রনি,গাজিউল হকের ছেলে মাঈন উদ্দিন সহ আরো অনেকে।

এভাবে নিয়মিত জুয়াখেলা চলতে থাকলে বিভিন্ন সন্ত্রাসী কর্মকাণ্ড,চুরি-ডাকাতি সহ খুনের ঘটনাও ঘটতে পারে বলে এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ আশংকা প্রকাশ করেন।এ বিষয়ে প্রয়োজনীয় আইনি পদক্ষেপের বিষয়ে জানতে চাইলে চৌদ্দগ্রাম থানার অফিসার ইনচার্জ শুভ রঞ্জন চাকমা বলেন,আমরা সংবাদ পাওয়ার সাথে সাথেই অভিযান পরিচালনা করব।সুনির্দিষ্ট তথ্য পেলেই পুলিশ জুয়াড়ীদের বিরুদ্ধে একশনে যাবে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *