রংপুরে মহিলাসহ ৩অপহরণকারী আটক,২৪ঘন্টায় অপহৃত ব্যবসায়ী উদ্ধার

মোতাহার হোসেন : রংপুরের মিঠাপুকুর থানার ময়েনপুর ইউনিয়নের কাশিমপুর পোড়া চাকলা গ্রামের মৃত মফিজ উদ্দিনের ছেলে মোঃ হাছান আলী (৪০) ২৮ফেব্রুয়ারী সকাল ৯ টায় ব্যবসায়িক কার্যক্রমে স্থানীয় শুকুরের হাট বাজারে যান।এরপর তার সন্ধান আর পাওয়া যাচ্ছিল না।ঐ দিন সকাল-১০টা হতে তার নিজস্ব মোবাইল থেকে তার স্ত্রী ও আত্নীয়দের সাথে কথা বলে দেড় লক্ষ টাকা বিকাশ করে পাঠাতে বলেন।আর তা না হলে হাছান-কে ফেরত পাবেন না।

অপহরণকারিরা বিকাশের কথা তার স্ত্রীকে জানালে এই নিয়ে পরিবারের লোকজন উৎকন্ঠায় পড়ে যান।কোন উপায় না দেখে তারা মিঠাপুকুর থানা পুলিশ এর কাছে আসেন এবং একটি জিডি করেন।রংপুর পুলিশ সুপার বিপ্লব কুমার সরকারের সার্বিক দিক-নির্দেশনায় সহকারী পুলিশ সুপার ডি-সার্কেল কামরুজ্জামানসহ মিঠাপুকুর থানা পুলিশ তাৎক্ষনিক নেমে পড়ে অভিযানে।

অবশেষে ১মার্চ সন্ধ্যা সাড়ে ৬টায় রংপুর জেলার পীরগাছা থানাধীন দেউতি এলাকায় বিশেষ অভিযান পরিচালনা করে অপহরনকারী ১।মোছাঃ লাবনী বেগম (২৫),পিতা-মোঃ মকবুল হোসেন,মাতা-মোছাঃ পারুল বেগম,সাং-জায়গীর (দুর্গাপুর),থানা-মিঠাপুকুর,জেলা-রংপুর,২।মোঃ শামীম মিয়া (৩০),পিতা-মৃত আনোয়ার হোসেন,মাতা-মোছাঃ সামসুন্নাহার বেগম,৩।মোঃ শাহীন মিয়া (৩৫),পিতা-মৃত আজগার আলী,মাতা-মৃত ছখিনা বেগম,উভয় সাং-চাচিয়া মীরগঞ্জ,থানা-সুন্দরগঞ্জ,জেলা-গাইবান্ধাদেরকে গ্রেফতার এবংতাদের কাছ থেকে অপহৃত ব্যাবসায়ী হাছান কে উদ্ধার করে পুলিশ।

রংপুর পুলিশের সহকারী পুলিশ সুপার ডি-সার্কেল কামরুজ্জামান সুত্রে জানা যায়,গ্রেফতারকৃতরা একটি সংঘবদ্ধ চক্র।তারা দীর্ঘদিন যাবত এধরনের অপরাধ করে আসছিল।প্রথমে তাদের চক্রের সদস্যদের দিয়ে ফেসবুক ও মোবাইলে কথা বলে বন্ধুত্ত্ব সর্ম্পক গড়ে তুলে এবং ১০/১৫ দিন পর দেখা করার কথা বলে ডেকে নিয়ে অপহরন করে।

এরপর নির্জন কোন জায়গায় নিয়ে গিয়ে উক্ত চক্রের সদস্যরা সবকিছু ছিনিয়ে নেয় এবং পরিবারের কাছে টাকা দাবি করতে থাকে।টাকা আদায় না হওয়া পযন্ত চলতে থাকে অমানবিক নির্যাতন।আটককৃতদের বিরুদ্ধে মিঠাপুকুর থানায় মামলা নং-০১,তারিখ,০১/০৩/২০২১, ধারা-৩৬৫/৩২৩/৩৮৫/৩৮৬/৩৪ পেনাল কোড রুজু হয়েছে এবং আসামীদের বিজ্ঞ আদালতে প্রেরণ করেছে পুলিশ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *