৩য় দিনে গড়ালো হল খোলার আন্দোলন,শিক্ষামন্ত্রীর ঘোষণা প্রত্যাখান ইবি শিক্ষার্থীদের

অনি আতিকুর রহমান : আবাসিক হল খুলে দেয়ার দাবিতে ক্যাম্পাসগুলোতে আন্দোলনে ফুঁসে উঠেছেন দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা।গতকাল শিক্ষামন্ত্রীর সিন্ধান্ত ঘোষণার পরপরই তা প্রত্যাখ্যান করেছেন বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছাত্র প্রতিনিধিরা।আজ মঙ্গলবার ক্যাম্পাসে সংবাদ সম্মেলন করে শিক্ষামন্ত্রীর সেই ঘোষণা প্রত্যাখ্যান করেছেন ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরাও।একইসাথে আবাসিক হল খুলে দেয়ার সিন্ধান্ত পুনর্বিবেচার আহ্বান জানিয়ে পাঁচ দিনের আল্টিমেটাম দিয়েছেন তারা।

মঙ্গলবার ক্যাম্পাসস্থ ডায়না চত্বর সংলগ্ন আম্রকাননে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।এতে লিখিত বক্তব্য পেশ করেন আন্দোলনরত শিক্ষার্থী জি কে সাদিক।এসময় কুষ্টিয়া জেলা ও ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ে কর্মরত বিভিন্ন ইলেকট্রনিক্স এবং প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকসহ বিভিন্ন বিভাগের শিক্ষার্থীরা উপস্থিত ছিলেন।শিক্ষার্থীরা বলেন, গত ২২ মে মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খোলার যে সিন্ধান্ত দিয়েছেন তা পুনর্বিবেচনার দাবি করে এই সিন্ধান্ত আমরা প্রত্যাখ্যান করছি।

আমরা মনে করি এই সিন্ধান্ত সাধারণ শিক্ষার্থীদের কথা বিবেচনায় না নিয়েই নেয়া হয়েছে।আমরা দেখেছি দেশের সবকিছু স্বাভাবিক রয়েছে।দেশের ৬৪ জেলায় স্থানীয় সরকার নির্বাচন হচ্ছে,বিভিন্ন রাজনৈতিক কর্মকান্ড হচ্ছে।যেখানে শিক্ষার্থীরাও অংশ নিচ্ছে।সরকার যদি সত্যিই করোনা সংক্রমনের শঙ্কা করতেন তাহলে এসব সিন্ধান্ত নিতেন না।তারা বলেন,দেশের কওমি মাদ্রাসা এবং হেফজখানাগুলোও প্রায় ছয় মাস ধরে খোলা আছে।

তারাও এদেশের শিক্ষার্থী।তাদের মধ্যেও করোনা সংক্রমনের আশংকা থাকার কথা কিন্তু সরকারের সিন্ধান্তের সাথে এর যৌক্তিকতা আমরা পাচ্ছি না।তাই আমরা বলতে চাই,যে হটকারি সিন্ধান্ত নেয়া হয়েছে সেখান থেকে সরে এসে আগামী ১ মার্চের মধ্যে খুলে দিতে হবে।অন্যথায় ছাত্রসমাজ শিক্ষাব্যবস্থা ধ্বংসকারী কোন সিন্ধান্ত মেনে নেবে না।এসময় তারা ক্যাম্পাস বন্ধ থাকা অবস্থায় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অযৌক্তিকভাবে আবাসন ফি এবং পরিবহন ফি আদায়ের সমালোচনা করে তা মওকুফেরও দাবি জানান।

ক্যাম্পাস সূত্র জানা গেছে,তৃতীয় আন্দোলনে সংবাদ সম্মেলন ছাড়াও ক্যাম্পাসে বিক্ষোভ মিছিল ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করেছেন ইবি শিক্ষার্থীরা।পরে তারা উপাচার্যের সাথেও সাক্ষাৎ করেন।প্রসঙ্গত, আবাসিক হল খোলার দাবিতে দেশের পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা লাগাতার আন্দোলন শুরু করেছেন।ঢাবি,জাবি,রাবি,ইবি,ববি,শাবিপ্রবিসহ বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে এই আন্দোলন ক্রমেই জোরদার হচ্ছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *