এফ-৩৫ ও এস-৪০০ একসঙ্গে রাখা যাবেনা-তুরস্ককে বাইডেনের হুশিয়ারি

কালজয়ী ডেস্ক : সাবেক প্রেসিডেন্টে ডোনাল্ড ট্রাম্পের প্রশাসন তুরস্কের কাছে এফ-৩৫ জঙ্গিবিমিান বিক্রি স্থগিত রাখার যে সিদ্ধান্ত নিয়েছিল তা প্রত্যাহারে করবে না বর্তমান জো বাইডেন প্রশাসন।এক এক মার্কিন সামরিক কর্মকর্তা এমন কথা বলেছেন।তিনি বলেছেন,আমেরিকা কাছ থেকে এফ-৩৫ পেতে হলে তুরস্ককে রাশিয়ার তৈরি অত্যধুনিক ক্ষেপনাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ ব্যবহার করা থেকে বিরত থাকতে হবে।

মার্কিন প্রতিরক্ষা মন্ত্রনালয়- পেন্টাগনের প্রেস সেক্রেটারি জন কিরবি রোববার এক বক্তব্যে এ মন্তব্য করেন।তিনি বলেন,এফ-৩৫ এবং এস-৪০০ একসঙ্গে রাখা যাবে না।এস-৪০০-এর ব্যবপারে ওয়াশিংটনের নীতিতে কোনো পরিবর্তন আসেনি।কিরবি আরো বলেন,তুরস্ক গত এক দশকে রাশিয়ার ক্ষেপণাস্ত্র প্রতিরক্ষা ব্যবস্থার পরিবর্তে মার্কিন ব্যবস্থা প্যাট্রিয়ট কেনার সিদ্ধান্ত নিতে পারত।

কিন্তু তা না করে আমেরিকার এফ-৩৫ জঙ্গিবিমান কেনার যোগ্যতা হারিয়েছে আঙ্কারা।তুরুস্ক হচ্ছে ন্যাটো জোটভুক্ত প্রথম দেশ যে কিনা রাশিয়ার কাছ থেকে অত্যাধুনিক আকাশ প্রতিরক্ষা ব্যবস্থা এস-৪০০ সংগ্রহ করেছে।২০১৭ সালে এ ধরনের চারটি ব্যবস্থা সংগ্রহের জন্য রাশিয়ার সঙ্গে ৫২০ কোটি ডলারের চুক্তি করে তুরস্ক।২০১৯ সালের জুলাই মাসে এ ব্যবস্থা আঙ্কারাকে সরবরাহ শুরু করে মস্কো যে প্রকিয়া এখনো চলছে।

মার্কিন সরকার ২০১৭ সাল থেকেই রাশিয়ার কাছ থেকে এস-৪০০ কেনার ব্যাপারে তুরস্ককে সতর্ক করে দিয়ে আসছে।মার্কিন সরকার দাবি করছে,এই চুক্তির মাধ্যমে তুরস্ক রাশিয়া হতে বিশাল অঙ্কের বাজেট তুলে দেয়ার পাশাপাশি ন্যাটা জোটের সামরিক প্রযুক্তিকে বিপদের মুখে ঠেলে দিচ্ছে।তবে তুরস্ক ও রাশিয়া আমেরিকার এ দাবি প্রত্যাখ্যান করেছে।কিন্তু আঙ্কারা বলেছে,দেশটি কোনো অবস্থায় রাশিয়ার সঙ্গে করা এ সংক্রান্ত চুক্তি বাতিল করবেনা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *