রংপুরের মিঠাপুকুরে ১শ ৬০কোটি টাকার সোলারসহ বিভিন্ন প্রকল্প বাস্তবায়ন

মোতাহার হোসেন : রংপুরের মিঠাপুকুরে সহস্রাধিক সোলার আর স্ট্রিট লাইটসহ বিভিন্ন উন্নয়ন মূলক কর্মসূচীতে মিঠাপুকুরের গ্রামীন জনপদে ঘটেছে জীবন মানের উন্নয়ন।দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা বিভাগ থেকে গ্রামীণ রাস্তায় সেতু,কালভার্ট,হেরিং বোন বন্ড,স্ট্রিট লাইট কিংবা সোলার,উন্নত চুলা স্থাপন এবং দুর্যোগ
সহনীয় নানা প্রকল্পে প্রায় দেড়শ কোটি টাকার কাজ হয়েছে।বর্তমানে উপজেলার কয়েক লক্ষ মানুষ এসব প্রকল্পের সুবিধা ভোগ করছেন।প্রায় একশ কোটি টাকার কাজ হয়েছে নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় এবং প্রায় ৬০ কোটি টাকার কাজ হয়েছে উন্নয়ন মূলক কর্মকান্ডে।

মিঠাপুকুর উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্রে প্রাপ্ত তথ্য অনুসারে,গত ৫ বছরে ২৫কোটি ৩১ লাখ টাকা ব্যয়ে ৯৫টি প্রকল্পের আওতায় ৯৫টি সেতু-কালভার্ট নির্মাণ করা হয়েছে।গ্রামীণ রাস্তায় হেরি বোন বন্ড করণের ৬ কোটি ৮৭ লাখ টাকা ব্যয়ে ১৩ প্রকল্পে ১৫ হাজার মিটার রাস্তা হেরিং বোন বন্ড করা হয়েছে।এছাড়াও ৬ কোটি ৩৭ লাখ টাকা ব্যয়ে স্ট্রিট লাইট প্রকল্পে ১১২৯টি স্ট্রিট লাইট এবং ৯ কোটি ৫৬ লাখ টাকা ব্যয়ে হোম সিস্টেম/এসি সিস্টেম সোলার স্থাপন করা হয়েছে ২হাজার ৬শটি।যারফলে আলোয় আলোকিত হয়েছে মিঠাপুকুর গ্রামীন জনপদের অলিগলি।

১ কোটি ৯৭ লাখ টাকা ব্যয়ে স্থাপন করা হয়েছে ২২ হাজার উন্নত মানের চুলা।২ কোটি ১১ লাখ টাকা ব্যয়ে দুযোর্গ সহনীয় বাড়ী নির্মাণ করা হয়েছে ৭৫টি।৬ কোটি ৩৯ লাখ টাকা ব্যয়ে গৃহহীনদের বাসগৃহ নির্মান করা হয়েছে ৬৩৯টি।অন্যদিকে প্রায় একশ কোটি টাকা ব্যয় করা হয়েছে সামাজিক নিরাপত্তা বেষ্টনীর আওতায় ভিজিএফ,টিআর,জিআর,কাবিখা এবং ইজিপিপি(৪০ দিনের কর্মসূচী)-তে।

উপজেলার খেটে খাওয়া সাধারণ মানুষ বলছেন,সরকারের এসব প্রকল্প বাস্তবায়নের ফলে একদিকে যেমন মানুষের বেকারত্ব দূর হয়েছে,পাশাপাশি পুর্ব-পুরুষদের সুত্রে পাওয়া মঙ্গা পরিস্থিতির অবসান ঘটিয়ে জীবন মানেরও উন্নয়ন ঘটেছে।আর এটা সম্ভব হয়েছে প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তার দিবারাত্রি কঠোর পরিশ্রমের কারনে।

মিঠাপুকুর প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা মোশফিকুর রহমান বলেন, সরকারের ধারবাহিক উন্নয়ন কর্মকান্ডের অংশ হিসেবে এবং মাননীয় এমপি এইচএন আশিকুর রহমান মহোদয়ের নিবিড় তত্ত্বাবধানে এসব প্রকল্প বাস্তবায়িত হয়েছে। যার প্রতিটি প্রকল্পই জনগণের কল্যানার্থে বাস্তবায়িত বলেই সাধারণ মানুষ এর সুফল পাচ্ছেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *