পাংশায় প্রকৌশলীকে মারধরের ঘটনায় মানববন্ধন

রতন মাহমুদ : পাংশায় উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ জাফর আলীকে মারধরের ঘটনায় ঘন্টা ব্যাপী মানব বন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে।সোমবার (২নভেম্বর) অফিসার্স ক্লাব পাংশার আয়োজনে উপজেলা পরিষদের সামনে মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করেছেন উপজেলার সকল দপ্তরের কর্মকর্তা কর্মচারী, বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষ।

মানববন্ধনে বক্তব্য রাখেন পাংশা উপজেলা নির্বাহী অফিসার বিপুল চন্দ্র দাস, রাজবাড়ী শিক্ষার নির্বাহী প্রকৌশলী মোঃ আরিফুজ্জামান, পাংশা অফিসার্স ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক উপজেলা পরিসংখ্যান কর্মকর্তা মোঃ মাহবুব হোসেন,পাংশা সিদ্দিকিয়া ফাজিল মাদরাসার অধ্যক্ষ আওয়াবুল্লাহ ইব্রাহিম প্রমুখ বক্তরা এ ঘটনার তদন্ত সাপেক্ষে সুষ্ঠ বিচার দাবী করেন।

মারধরের ঘটনায় জাফর আলী বাদী হয়ে পাংশা মডেল থানায় একটি মামলাও দায়ের করেছেন। পাংশা শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত পাংশা সিদ্দিকিয়া ফাজিল মাদরাসার ৪তলা ভীত বিশিষ্ঠ একতলা একাডেমিক ভবন নির্মান কাজ চলছে।৭৫ লক্ষ টাকা ব্যয়ে ১তলা ভবনের নির্মান কাজটি করছেন রাজবাড়ীর ঠিকাদার আব্দুর রহিম মোল্লা তিনি ফরিদপুর’র মের্সাস আনোয়ার হোসেন’র প্রতিনিধি হিসাবে কাজ করে আসছিল আব্দুর রহিম মোল্লা হয়ে এ কাজ দেখভাল করছিল তার পালিত পুত্র জাহিদ হাসান।

শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের আদেশ প্রাপ্ত হয়ে এ উন্নয়ন কাজের দেখভাল করে আসছিল পাংশা উপজেলা শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরে কর্মরত উপ-সহকারী প্রকৌশলী মোঃ জাফর আলী। গত ২৭ অক্টোবর বিকালে কাজের সাইডে নিম্ন মানের ইট,বালি,খোয়া নিয়ে আসে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এবং জোরপূর্বক ওই নিম্ম মানের সামগ্রী দিয়ে ঢালাই কাজ করার জন্য পায়তারা করে।

ঠিকাদারের ছেলে জাহিদ হাসান ও তার লোকজন এ সময় উপ- সহকারী প্রকৌশলী মোঃ জাফর আলী নিম্ন মানের সামগ্রী দিয়ে নির্মাণ কাজ না করার জন্য বললে ঠিকাদারের পালিত পুত্র জাহিদ হাসান তাকে বেধরক মারপিট করে এবং তার ব্যবহৃত মোটর সাইকেলটি ভাংচুর করে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *